এই ঘটনায় ব্যাংকের গভর্নর এবং দুই জন ডেপুটি গভর্নর অপসারিত হয়েছেন কিন্তু আমর মণে কিছু প্রশ্নের বিভ্রাট এর জন্ম দিয়েছে;

১) অর্থ মন্ত্রী মহোদয় বলেছেন, এই অপকর্মের সাথে বাংলাদেশ ব্যাংকের লোক জড়িত ! তাহলে হ্যাকিঙয়ের কথা বার বার আসছে কেন?

২) বাংলাদেশ ব্যাংকের লোক জড়িত থাকলে তাঁদের নাম প্রকাশ কেন করা হচ্ছে না কেন? ব্যাবস্থা নেওয়া হচ্ছেনা কেন?

৩) অর্থ মন্ত্রী মহোদয় বলেছেন, ফেডারেল ব্যাংক থেকে অর্থ স্থানন্ত্রের প্রক্রিয়ায় ৬ জন ব্যাক্তির বাইওম্যাট্রিক ফিঙ্গার প্রিন্ট দীতে হয় এবং তার প্রমাণ মিলেছে। তাঁরা কে বা কারা? পরিচয় জানানো হচ্ছে না কেন?

৪) যদি বাইওম্যাট্রিক পদ্ধতিতে আর্থ স্থানন্তর হয়ে থাকে, তবে বার বার হ্যাকিঙয়ের কথা বলে আমদেরকে বিভ্রান্ত করা হচ্ছে কেন? 

৫) আসলেই কি আমরা আন্তরিক প্রকৃত সত্য উদ্ঘাটনের জন্য? অপরাধীকে চিহ্নিত করতে? আর্থ উদ্ধার এর জন্য? নাকি সকল দুরব্রিত্তানের মতো এই ঘটনাও হিমাগারে যাবে ???????